ঢাকাFriday , 2 February 2024
  • অন্যান্য

কালিয়াকৈরে মাছ চাষে সফল আদর্শ মৎস্য খামার।  

news
February 2, 2024 8:57 pm । ৬৫৭ জন
Link Copied!

কালিয়াকৈরে মাছ চাষে সফল আদর্শ মৎস্য খামার।

  • তুষার আহম্মেদ

কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি:

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে ডুবাইল ”আদর্শ মৎস খামার” লীজ গ্রহণ করে ব্যাপকভাবে মাছ চাষ কার্যক্রম শুরু করেন।যার মাধ্যমে দেশের মৎস্য সম্পদ বৃদ্ধির পাশাপাশি আমিষের চাহিদা যেমন পুরণ হচ্ছে।তেমনি আর্থিকভাবে স্বচ্ছলতা আসছে।

জানা গেছে ,ডুবাইল বিল ”আদর্শ মৎস্য খামার” কালিয়াকৈর উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নে গলাচিপা এলাকায় অবস্থিত একটি মৎস্য চাষ প্রকল্প। জলাশয়টি দীর্ঘদিন যাবৎ পতিত অবস্থায় থাকার পর কেএনবি এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ এর মালিক কামরুজ্জামান গত ২০২১ সালে স্থানীয় জমি মালিকদের নিকট থেকে (কেএনবি ফিসারিজ প্রজেক্ট)ডুবাইল বিল আদর্শ মৎস্য খামার লীজ গ্রহণ করে ব্যাপকভাবে মাছ চাষ কার্যক্রম শুরু করেন। যার মাধ্যমে দেশের মৎস্য সম্পদ বৃদ্ধির পাশাপাশি আমিষের চাহিদা যেমন পুরণ হচ্ছে, স্থানীয়ভাবে ব্যাপক কর্মসংস্থানেরও সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে স্থায়ীভাবে ৬৬ জন কর্মরত রয়েছেন।

প্রায় ৭২.৬৬ হেক্টরের খামারটির জলায়তন ৫৬.৬৫ হেক্টর। খামারটিতে পুকুরের সংখ্যা ৫টি। কার্প-তেলাপিয়া-শিং-মাগুর চাষ পদ্ধতিতে শুরু করা প্রকল্পটিতে গত ২ বছরে গড় উৎপাদন হয় ২০৪১.৩৩ মে.টন। পরবর্তী ২০২৩ বর্ষে খামারটি মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়ে২২৬৬ মে.টনে দাঁড়িয়েছে।যা স্থানীয় এবং জাতীয় মৎস্য উৎপাদনে যথেষ্ট আশাবঞ্জক। ডুবাইল বিল আদর্শ মৎস্য খামারে মাছের উৎপাদন স্থানীয় জনগোষ্টি, মাছ চাষিদের মধ্যে নতুনভাবে ব্যপক ভাবেআশার আলো জাগিয়েছে।

স্থানীয় উপজেলা মৎস্য দপ্তরের নিয়মিত তত্ত্বাবধানে ও প্রকল্প পরিচালনায় দায়িত্বরত ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ গ্রহণের মাধ্যমে পরিচালিত প্রকল্পটির উৎপাদনে গাজীপুর জেলার মৎস্য চাহিদা যেমন পূরণ করছে তেমনি স্থানীয় প্রান্তিক চাষিদের মধ্যে প্রকল্পটির মৎস্য চাষ পদ্ধতি গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে তুলেছে।

ডুবাইল বিল ”আদর্শ মৎস খামার”র মালিক কামরুজ্জামান জানান, দীর্ঘ বছর প্রবাসে ছিলাম প্রবাস থেকে এসে ভাবলাম বেকার না থেকে মাছ চাষ করে লাভবান হওয়া সম্ভব।তাই মাছ চাষে ঝুঁকে পড়ি একদিকে যেমন লাভবান হওয়া সম্ভব অপরদিকে দেশের মানুষের প্রাণীজ আমিষ পূরণ করা সম্ভব।সেই সাথে অনেক পরিবারের কর্মসংস্থানেরও ব্যবস্হা হবে।তাই৫৬.৬৫ হেক্টর জমি লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে লাভবান হচ্ছি।এই খামার থেকে ষাট থেকে ৭০ জনের কর্মস্থানের সৃষ্টি হয়েছে ।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ওয়াহেদুল আবরার জানান, উপজেলার ১২০০ হেক্টর জমিতে মাছ চাষ করা হচ্ছে। উপজেলার মাছের চাহিদা রয়েছে ১২০০০ মেট্রিক টন,সেখানে এ বছর উৎপাদন হয়েছে ১৪ হাজার মেট্রিক টন।উপজেলার প্রাণীজ আমিষ ঘাটতি পূরণ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের চাহিদা পূরণে ভূমিকা রাখছে এই মৎস চাষিরা।