ঢাকাSaturday , 17 February 2024
  • অন্যান্য

কালিয়াকৈরে বেতনের দাবিতে শ্রমিক আন্দোলন।(কর্মকর্তাদের মারধর)

news
February 17, 2024 8:57 pm । ৬২ জন
Link Copied!

কালিয়াকৈরে বেতনের দাবিতে শ্রমিক আন্দোলন।(কর্মকর্তাদের মারধর)

তুষার আহম্মেদ

কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বকেয়া বেতন ও বাৎসরিক ছুটির টাকা সহ বিভিন্ন দাবিতে মাহমুদ জিন্স নামের একটি পোশাক তৈরি কারখানার শ্রমিকরা কারখানার ভিতরে আন্দোলন বিক্ষোভ ও ভাঙচুর করেছে।এ সময় ওই কারখানার শ্রমিকরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আটকে রেখে শারীরিকভাবেও লাঞ্ছিত করার খবর পাওয়া গেছে।গতকাল শনিবার সকালে উপজেলার চন্দ্রা এলাকায় মাহমুদ জিন্স কারখানার প্রায় সাড়ে চার হাজার শ্রমিক যথারীতি কারখানায় প্রবেশ করে এবং কাজে যোগদান না করে একত্রিত হয়ে বকেয়া বেতন, ছুটির টাকা ও নিয়ম বহির্ভূত শ্রমিক ছাটাই বন্ধে আন্দোলন করেন। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা ওই কারখানার প্রধান ফটক আটকে দিয়ে কারখানার কর্মকর্তাদের জিম্মি করে আন্দোলন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ ও কালিয়াকৈর শিল্পাঞ্চল জোনের শিল্প পুলিশের ওসি নিতাই চন্দ্র সরকার ঘটনাস্থলে সে উপস্থিত হলেও তারা কারখানার ভিতরে প্রবেশ করতে পারেননি। পুলিশ ও শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানাগেছে,উপজেলার চন্দ্রা মাহমুদ জিন্সের মালিক পক্ষ কারখানাটির শ্রমিকদের পাওনাকৃত মূল বেতনের ৪০% প্রদান করেছেন।বাকি ৬০% বেতন সহ অন্যান্য দাবি আদায়ের জন্য জন্য কারখানাটির শ্রমিকরা গতকাল সকালে কারখানাটিতে প্রবেশ করে কাজে যোগ না দিয়ে শ্রমিকগণ একত্রিত হয়ে কারখানাটির ভিতরেই অবস্থান করেন এবং বকেয়া বেতনের দাবিতে কর্ম বিরতি সহ বিক্ষোভ ও আন্দোলন করেন শ্রমিকগণ ওই কারখানার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জিম্মি করে রাখেন।এসময় আন্দোলনরত শ্রমিকরা কারখানাটির কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সহ কিছু স্টাফদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।পুলিশ অ্যাকশনে না গিয়ে মালিক পক্ষ ও পুলিশ কয়েক দফা আলোচনা করে আগামি২২ ফেব্রুয়ারী শ্রমিকদের বকেয়া বেতনের আশ্বাস দিলেও শ্রমিকরা তা মানতে নারাজ।তাদের দাবি আজ শনিবারই বকেয়া বেতন পরিশোধ করতে হবে।শ্রমিকদের পক্ষ থেকে৯টি দাবি সংবলিত একটি দাবি পত্র কারখানার কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরা হয়।নাম প্রকাশ না করা শর্তে কারখানাটির এক নারী শ্রমিক জানান,”আজ মাসের১৭তারিখ কোম্পানি দিছে মাত্র ৪০ শতাংশ বেতন সেই চল্লিশ শতাংশ টাকা দিয়ে ঘর ভাড়া,দোকান বাকি, পোলাপানের লেখাপড়া, খাওন খরচ, কোন কিছুই সম্ভব হইতেছে না। মালিকপক্ষ আমাদের টাকা না দিলে আমাদের বাড়ির মালিক তো সেটা বুঝবে না।বাকি টাকা না দিলে আমরা কি খামু কই যামু, কিছুই বুঝবার পারতাছিনা”এদিকে কারখানা কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের মাঝে সমঝোতা না হওয়ায় অপ্রীতিকার ঘটনা এড়াতে কারখানাটির সামনে শিল্প পুলিশ এবং কালিয়াকৈর থানা পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য সতর্কাবস্হায় রয়েছেন।শিল্প পুলিশের কালিয়াকৈর জোনের ওসি নিতাই চন্দ্র সরকার “স্বদেশপ্রতিদিন”কে জানান, বকেয়া বেতনের দাবিতে কারখানাটির শ্রমিকরা আন্দোলন করছে। মালিকপক্ষের সাথে আলোচনা করে দ্রুত সময়ের মাঝে বকেয়া বেতন পরিশোধ করার আশ্বাস দেয়া হয়েছে, তার পরও শ্রমিকরা আন্দোলন করে যাচ্ছে। তিনি আরো জানান সব ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শিল্প পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে।

মাহমুদ জিন্স কারখানাটির চিফঅব বিজনেস অফিসার আরমান চৌধুরী জানান,গত বৃহস্পতিবার শ্রমিকদের মূল বেতনের ৪০% পরিশোধ করা হয়েছিলো বাকি ৬০% বেতন আগামি বৃহস্পতিবার দেওয়া হবে।কিন্তু শ্রমিকরা তা মানছেননা।